মুক্তিযোদ্ধার মেয়ে নূর-ই জান্নাত তাবাসসুম সহকারি জজ পদে সুপারিশ প্রাপ্ত

মুক্তিযোদ্ধার মেয়ে নূর-ই জান্নাত তাবাসসুম সহকারি জজ পদে সুপারিশ প্রাপ্ত

হোমনা( কুমিল্লা) প্রতিনিধি
বাংলাদেশ জুডিশিয়াল সার্ভিসের (সহকারী জজ) চুড়ান্ত ফলাফলে সুপারিশ প্রাপ্ত হয়েছেন বীর মুক্তিযোদ্ধার মেয়ে নূর- জান্নাত তাবাসসুম। তাবাস সুম কুমিল্লা জেলার হোমনা উপজেলার চান্দেরচর গ্রামের বীর মুক্তিযোদ্ধা খন্দকার হুমায়ুন কবীর এর মেয়ে।বৃহস্পতিবার (২১ এপ্রিল) তাঁর এ চুড়ান্ত ফলাফল প্রকাশিত হয়।

নূর-ই জান্নাতর তাবাসসুম চান্দেরচর সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় থেকে ট্যালেন্টপুলে বৃত্তি পেয়ে পঞ্চম শ্রেণি পাস করে স্থানীয় কলাগাছিয়া মফিজ এন্ড আছমত (এম এ) উচ্চ বিদ্যালয়ে ভর্তি হয়। সেখান থেকে ২০১০ সালে জেএসসিতে গোল্ডেন জিপিএ-৫ (ট্যালেন্টপুলে বৃত্তি) এবং একই স্কুল থেকে ২০১২ সালে গোল্ডেন জিপিএ-৫ পেয়ে এসএসসি পাস করেন। পরে কুমিল্লা ইস্পাহানী কলেজে থেকে ২০১৪ সালে গোল্ডেন জিপিএ-৫ পেয়ে এইচএসসি পাস করেন। পরবর্তীতে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে আইন বিভাগ থেকে অনার্স, মাষ্টার্সে প্রথম শ্রেণি পেয়ে উত্তৃীর্ণ হন।

নূর-ই জান্নাত তাবাসসুম তার অনুভূতি প্রকাশ করে বলেন, ‘আমার এই ফলাফলের জন্য আমার পরিবার ও বিভাগের শিক্ষকদের অবদান সবচেয়ে বেশি। আমি বরাবরই প্রত্যাশা ছিল ভাল রেজাল্ট করবো। আমার কোনও সু নির্দিষ্ট লক্ষ্য ছিল না। সময়ই বলে দিবে সমাজে আমার ডিমান্ড কি? সময় ও পরিবেশ পরিস্থিতি যখন যা ডিমান্ড করবে, তখন সেটাই করবো।’ তবে যেহেতু বিচারকের লাইনে এসেছি, তাই সব সময় ন্যায় বিচার প্রতিষ্ঠার চেষ্টা করবো। বিচার বঞ্চিতদের পাশে দাঁড়িয়ে প্রকৃত দোষীদের বিরুদ্ধে অবস্থান থাকবে আমার প্রথম প্রাইরটি।

শিক্ষার্থীদের উদ্দেশ্যে তিনি বলেন , নিয়মিত পড়া লেখার বিকল্প নাই। পাঠ্য বইয়ের পাশাপাশি সমসাময়িক বিষয়ে ধারণা থাকতে হবে। তিনি সকলের দোয়া ও সহযোগিতা কামনা করেছেন।

পিতা বীর মুক্তিযোদ্ধা খন্দকার হুমায়ুন কবির বলেন, মেয়ের ফলাফলে আমি খুব খুশি। আশা করছি সকল চাপের উর্দ্ধে থেকে সে ন্যায় বিচার করতে পারবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *