দাউদকান্দিতে স্বামী নিয়ে দুই স্ত্রীর সালিশ, অধিকার পেলেন দ্বিতীয় স্ত্রী

দাউদকান্দিতে স্বামী নিয়ে দুই স্ত্রীর সালিশ, অধিকার পেলেন দ্বিতীয় স্ত্রী

দাউদকান্দি প্রতিনিধি

ঢাকার শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে গত ১৮ আগস্ট মালদ্বীপ প্রবাসী স্বামী মাইনুদ্দিন মিয়াজীকে নিয়ে দুই স্ত্রীর কাড়াকাড়ির ঘটনা গণমাধ্যমসহ সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল হয়। প্রবাসী মাইনুদ্দিন কুমিল্লার দাউদকান্দি উপজেলার ইলিয়টগঞ্জ ইউনিয়নের বাসরা গ্রামের বাসিন্দা।
সোমবার বিকালে আলোচিত এ বিষয়টি নিয়ে স্থানীয় ইউনিয়ন পরিষদে এক শালিস বৈঠকে ২য় স্ত্রী কেই স্বামীর অধিকার ফিরিয়ে দেয়া হয়েছে।
জানা গেছে, কুমিল্লা জেলার দাউদকান্দি উপজেলার বাসরা গ্রামের মাইনুদ্দিন মিয়াজী ২০১৪ ইং সালে মালদ্বীপ থেকে ছুটিতে    এসে উপজেলার টামটা গ্রামের সানজিদা আক্তারকে বিয়ে করেন। কিন্ত কয়েক মাসপর সানজিদা আক্তারের সঙ্গে মাইনুদ্দিনের দাম্পত্য কলহ শুরু হলে। সানজিদা স্বামীর বাড়ি ছেড়ে বাবার বাড়িতে চলে যায়।কিন্ত কোন ডিভোর্স হয়নি। পরে মাঈন উদ্দিন ২০১৮ সালে নারায়ণগঞ্জের মেয়ে তমাকে বিয়ে করে ঘর সংসার শুরু করে। এদের সংসারে ১টি সন্তান জন্ম গ্রহন করেন। গতকাল সোমবার (১৮ আগস্ট) মাঈনউদ্দিন মালদ্বীপ থেকে দেশে আসার সময় এয়ারপোর্টএ স্বামী নিয়ে দুই স্ত্রী যুদ্ধে লিপ্ত হয়। এতে বিষয়টি নিরাপত্তা বাহিনীর দৃষ্টি গোচর হলেবিমানবন্দরে কর্মরত আইন শৃংখলা বাহিনীর সদস্যরা স্বামীসহ দুই স্ত্রীকে নিরাপত্তা হেফাজতে নেয়। পরে মাঈনউদ্দিনের চাচা আলী আহম্মদ বিষয়টি সুরাহা করার অঙ্গীকার করে এদেরকে তাঁর জিম্মায় নিয়ে আসেন।
সোমবার বিকালে এ নিয়ে স্থানীয় ইউনিয়ন পরিষদে শালিস বৈঠক অনুষ্টিত হয়। এতে প্রথম স্ত্রী সানজিদাকে সাড়ে ৩ লাখ টাকা ও সন্তানের নামে ৫ শতাংশ জমি লিখে দেয়া হয়। এবং দ্বিতীয় স্ত্রী তমাকে নিয়ে ঘর সংসার করার সিদ্ধান্ত দেয়া হয়।
ইলিয়টগঞ্জ দক্ষিণ ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মামুনুর রশীদ সালিশের সত্যতাা স্বীর করেছেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published.